25 April- 2019 ।। ১২ই বৈশাখ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ ।। বিকাল ৪:৫২

জলঢাকায় শোকের মাতম ঘুমন্ত শ্রমিকদের ওপর কয়লার ট্রাক, নিহত ১৩

আপডেট নিউজ ডটকমঃ

কুমিল্লায় ইটভাটা শ্রমিকদের শেডে কয়লার ট্রাক উল্টে ১৩ ঘুমন্ত শ্রমিক নির্মমভাবে নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরো কমপক্ষে ৩ জন। শুক্রবার ভোরে চৌদ্দগ্রাম উপজেলার ঘোলপাশা ইউনিয়নের করিমপুর (দোসরি ব্রিজ) এলাকায় কাজী অ্যান্ড কোং নামক একটি ব্রিকফিল্ডে এ দুর্ঘটনা ঘটে। এ ঘটনার পর ট্রাকের চালক-হেলপার ও ব্রিকফিল্ডের পরিচালক পালিয়ে যায়। এ ঘটনার তদন্তের জন্য পুলিশ ও জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ২টি পৃথক তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। স্থানীয়রা জানায়, সিলেট থেকে কয়লা ভর্তি ট্রাকটি শুক্রবার ভোর রাতে ওই ব্রিক ফিল্ডে আসার পর হঠাৎ করে ট্রাকটি উল্টে শ্রমিকদের থাকার ঘরটিকে চাপা দেয়। এ সময় ঘুমিয়ে থাকা শ্রমিকদের মধ্যে ঘটনাস্থলে ১২ জন, হাসপাতালে নেয়ার পর ১ জনসহ ১৩ জন ইটভাটা শ্রমিক নিহত হন।

আহত হয়েছেন আরো কমপক্ষে ৩ জন ।

কুমিল্লা জেলা প্রশাসক মো. আবুল ফজল মীর, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবদুল্লাহ আল মামুন, চৌদ্দগ্রাম উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আবদুস সোবহান ভূঁইয়া হাসান, পৌর মেয়র মিজানুর রহমান, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. শেখ শহিদুল ইসলাম, থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবদুল্লাহ আল মাহফুজ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। জেলা প্রশাসক মো. আবুল ফজল মীর জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে নিহতদের প্রত্যেকের পরিবারকে নগদ ২০ হাজার টাকা করে আর্থিক সহায়তা দেন। এদিকে এ ঘটনায় গভীর শোক প্রকাশ করে নিহতদের শোকার্ত পরিবারগুলোর প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন স্থানীয় এমপি ও সাবেক রেলপথমন্ত্রী মো. মুজিবুল হক মুজিব।

এ ঘটনায় পৃথক দুটি তদন্ত কমিটি গঠন করেছে জেলা ও পুলিশ প্রশাসন। জেলা প্রশাসন কর্তৃক অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) কাইজার মোহাম্মদ ফারাবীকে আহ্বায়ক করে ৪ সদস্যের এবং পুলিশ প্রশাসন কর্তৃক অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (দক্ষিণ) আবদুল্লাহ আল-মামুনকে আহ্বায়ক করে ৩ সদস্যের একটিসহ পৃথক ২টি কমিটি গঠন করা হয়েছে। চৌদ্দগ্রাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবদুল্লাহ আল মাহফুজ জানান, দুপুরে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে নিহতদের ময়নাতদন্তের পর তাদের মরদেহ তাদের গ্রামের বাড়ির উদ্দেশ্যে প্রেরণ করা হয়েছে। ট্রাকের চালক ও হেলপার পলাতক রয়েছে। এ ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে।

অপরদিকে নিহত ১৩ শ্রমিকের বাড়িতে শোকের মাতম চলছে। কিছুতেই থামছে না আহাজারি। কোনো সান্ত্বনা কাজে আসছে না। স্বজন হারানো পরিবারগুলোর কান্নায় পরিবেশ ভারি হয়ে উঠেছে জলঢাকা উপজেলার মীরগঞ্জ ও শিমুলবাড়ি ইউনিয়নের গ্রামের পর গ্রাম। পরিবারের উপার্জনক্ষম মানুষটিকে হারিয়ে বাকরুদ্ধ হয়ে পড়েছেন কেউ কেউ। মূর্ছা যাচ্ছেন অনেকেই। জীবিকার তাগিদে পরিবার পরিজন ছেড়ে কুমিল্লার ইটভাটাতে কাজে গিয়ে লাশ হয়ে ফিরে আসা মানুষগুলোর পরিবারে নেমে এসেছে অন্ধকার।

২৫শে জানুয়ারি ভোরে কুমিল্লার চৌদ্দগ্রাম উপজেলার গোলপাশা ইউনিয়নের নারায়নপুরে কয়লার ট্রাক উল্টে ঘুমন্ত অবস্থায় যে ১৩ শ্রমিক নিহত হয়েছেন সেই হত্যভাগ্য শ্রমিকরা সবাই নীলফামারী জেলার জলঢাকা উপজেলার মীরগঞ্জ ইউনিয়নের পাঠানপাড়া ও শিমুলবাড়ি ইউনিয়নের ঘুঘুমারী গ্রামের বাসিন্দা। জলঢাকা থানার ওসি মোস্তাফিজুর রহমান জানান, ওই দুই ইউনিয়নের ইউপি চেয়ারম্যাগণ নিহতদের পরিচয় নিশ্চিত করেছেন।

মীরগঞ্জ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান হুকুম আলী জানান, তার ইউনিয়নের পাঠানপাড়া গ্রামের ৯ জন নিহত হয়েছেন। অপরদিকে শিমুলবাড়ি ইউপি চেয়ারম্যান হামিদুল ইসলাম জানান, তার ইউনিয়নের ঘুঘুমারী গ্রামের নিহত হয়েছেন ৪ জন। নিহতরা হলেন- বিপ্লব (১৯), মনোরঞ্জন চন্দ্র রায় (১৯), শঙ্কর চন্দ্র রায় (২২), দিপু চন্দ্র রায় (১৯), অমৃত চন্দ্র রায় (২০), মিনাল চন্দ্র রায় (২১), বিকাশ চন্দ্র রায় (২৮), রঞ্জিত চন্দ্র রায় (৩০), কনক রায় (৩৫), মো. সেলিম (২৮), মো. মোরসালিন (১৮), তরুণ চন্দ্র রায় (২৫) ও মাসুম (১৮)। জলঢাকা থানার ওসি জানান, নিহতদের লাশ আজ ২৬শে জানুয়ারি সকাল নাগাদ নীলফামারী আসতে পারে। কুমিল্লায় নিহতদের ময়নাতদন্ত শেষে কফিনে লাশ পাঠানোর ব্যবস্থা করা হয়েছে বলে তিনি জানান।

আপডেট নিউজ ডটকম/ শনিবার, ২৬ জানুয়ারি ২০১৯, ১৩ মাঘ ১৪২৫

আপডেট নিউজ ডটকম এর সংবাদ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন...



More News Of This Category


Archives

MonTueWedThuFriSatSun
1234567
891011121314
15161718192021
22232425262728
2930     
       
    123
45678910
11121314151617
18192021222324
25262728293031
       
    123
11121314151617
18192021222324
25262728   
       
 123456
78910111213
14151617181920
21222324252627
28293031   
       
সংবাদ শিরোনামঃ